Sun. Sep 15th, 2019

ঝিনাইদহ নিউজ

সবার আগে সর্বশেষ

ঈদ উৎসব : দর্শনার্থী টানতে ঝিনাইদহের বিনোদন কেন্দ্রগুলোর প্রস্তুতি

1 min read

ঝিনাইদহ নিউজ: দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। ঈদের দিন থেকে সপ্তাহব্যাপী দর্শনার্থী টানতে নানা প্রস্তুতি নিচ্ছে ঝিনাইদহের বিনোদন স্পটগুলো। এসব পর্যটন স্পটে এখন চলছে ধোয়া-মোছা, পরিচর্যা আর নতুন রাইডার স্থাপনের কাজ।

ঝিনাইদহ শহর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত জোহান ড্রিম ভ্যালি পার্ক অ্যান্ড পিকনিক স্পট। কয়েক মাস ধরে দর্শনার্থী না থাকায় লোকসান গুনতে হয়েছে মালিকপক্ষকে। ঈদে এ ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ঘষে-মেজে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে এ পার্ককে।

পার্কের ম্যানেজার হাসানুজ্জামান বাবু বলেন, এবারের ঈদে দর্শনার্থীদের আনন্দ দিতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ১২৫ বিঘা জমির ওপর অবস্থিত এ পার্কে ২৫টি ভিআইপি পিকনিক স্পট রয়েছে। এছাড়া এখানে রয়েছে জেট কোস্টার, কেইভ ট্রেন, পাইরেট শিপ, প্যাডেল বোট, ওয়াটার রিকশা, ফানি অ্যাডভেঞ্চার, নাগরদোলা, সুইং চেয়ার, কিডস জোনসহ নানা রাইডস। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেয়া হয়েছে বিশেষ ছাড়।

শহরের নবগঙ্গা নদীর তীরে অবস্থিত প্রান্তিক সাংস্কৃতিক পল্লী অ্যান্ড শিশুপার্কের স্বত্বাধিকারী নাজিম উদ্দিন জুলিয়াস বলেন, কয়েক মাস আগে এ পার্কটি উদ্বোধন করা হয়। মূলত পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে পার্কটি সাজানো হয়েছে। এখন চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি। দর্শনার্থী টানতে সংযোজন করা হয়েছে বেশকিছু নতুন রাইড।

শহরের তামান্না পার্কের ম্যানেজার রুহুল আমিন বলেন, ঈদ উপলক্ষে পার্কে বিশেষ ছাড় দেয়া হচ্ছে। আগে পাঁচটি টিকিটের দাম ১৫০ টাকা ছিল। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে তার মূল্য কমিয়ে ধরা হয়েছে ১০০ টাকা। আশা করি, এবার ঈদে দর্শনার্থীর ভালো ভিড় হবে।

জোহান ড্রিম ভ্যালি পার্ক অ্যান্ড পিকনিক স্পটের স্বত্বাধিকারী মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, এপ্রিল থেকে নভেম্বর পর্যন্ত মূলত পার্কের ডাউন সিজন। এ সময় দর্শনার্থী থাকে না। যে কারণে ব্যবসায় লোকসান গুনতে হয়। ঈদের দিন থেকে শুরু করে টানা পাঁচদিন পার্কে ভিড় থাকবে। এ কয়দিনে ৩৫ থেকে ৪০ হাজার দর্শনার্থী আসবে বলে আশা করছি।

ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান বলেন, শহরের বিনোদন কেন্দ্রগুলোয় দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। পার্কগুলোয় সার্বক্ষণিক পুলিশ সদস্য নিয়োজিত থাকবে। যেকোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশ সদাতত্পর থাকবে। আশা করি, সবাই আনন্দের মধ্য দিয়ে ঈদ উদযাপন করতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *