Sat. Dec 14th, 2019

ঝিনাইদহ নিউজ

সবার আগে সর্বশেষ

সফলতার সিড়ি বেয়ে এগিয়ে চলেছেন বিপাশা

1 min read
সফলতার সিড়ি বেয়ে এগিয়ে চলেছেন বিপাশা

সফলতার সিড়ি বেয়ে এগিয়ে চলেছেন বিপাশা

সফলতার সিড়ি বেয়ে এগিয়ে চলেছেন বিপাশা
সফলতার সিড়ি বেয়ে এগিয়ে চলেছেন বিপাশা

স্বপ্নকে পুঁজি করেই বেঁচে থাকা ও নিরন্তর পথচলা- এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে এগিয়ে চলছেন তরুণী পিয়া বিপাশা। তার গ্রামের বাড়ি খুলনায়। থাকেন তিনি ঢাকায়। পড়ছেন সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজে। ইতিমধ্যে সাবলীল অভিনয়শৈলীর কারণে পিয়া বিপাশা এ প্রজন্মের একজন মডেল হিসেবে নিজেকে দাঁড় করিয়েছেন। চেষ্টা করছেন অভিনয়ে প্রতিষ্ঠিত হতে।

ব্যক্তি হিসেবে পিয়া বিপাশা একটু ভিন্ন। ভীষণ আড্ডাবাজ। চঞ্চল প্রকৃতির। সহজেই সবার সঙ্গে মিশতে পারেন। সরাসরি কথা বলতে পছন্দ করেন। মিষ্টি হাসি এবং প্রাণবন্ত কথায় মাতিয়ে রাখেন সবাইকে। পিয়া যখন যে কাজটি করেন সেটি আন্তরিকতা ও দরদ দিয়ে করার চেষ্টা করেন।

বড় হতে হতে মিডিয়ার প্রতি এক ধরনের আকর্ষণ জন্মে তার। মূলত মিডিয়াতে আসার পেছনে সব অনুপ্রেরণায় ছিলেন তার বড়বোন আশা। ভিট চ্যানেল আই টপ মডেল প্রতিযোগিতার প্রথম রানারআপ ছিলেন আশা। বোনের সাহায্য নিয়েই মিডিয়াতে পা রাখলেন তিনি। পিয়া বিপাশা মডেলিং দিয়ে জনপ্রিয় হলেও মিডিয়ায় তার যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০১২ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টার প্রতিযোগিতার মধ্যদিয়ে। সেরা দশে পৌঁছেও কোনো এক কারণে নিজেকে সেখান থেকে গুটিয়ে নেন।

কিছু দিন বিরতির পর ডাক পেলেন আড়ং বিলবোর্ডের জন্য। এখানেই শুরু হল তার পূনর্যাত্র। তারপর ক্যাটস আই, এক্সটাসি, চৈতীসহ নামকরা কিছু ফ্যাশন হাউনের বিলবোর্ডের মডেল হয়েছেন তিনি। ইউনিলিভার ভেজলিনের বিলবোর্ডটি ছিল পিয়া বিপাশার জন্য টার্নিং পয়েন্ট। এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সবাই পিয়া বিপাশাকে চিনতে শুরু করে। গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনচিত্রে তার গ্লামারাস ক্যারিয়ারে যোগ করে নতুন মাত্রা। গ্রামীণফোনের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দর্শক পরিচিতি অনেক বেড়ে যায় পিয়া বিপাশার। একের পর এক বিজ্ঞাপনচিত্রে মডেল হন তিনি।

অল্প সময়ের মধ্যে মডেলিং জগতে আলোচনায় চলে এসেছেন পিয়া বিপাশা। পাশাপাশি অন্তু করিমের সঙ্গে একটি মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়ে বেশ জনপ্রিয়তা পান। গানটি ছিল জনি খন্দকার ও মোহনার গাওয়া ‘তুমি আমার’। এখন পিয়া বিপাশা অভিনয়ও করছেন নিয়মিত। তবে খুব বেছে বেছে। সব ধরনের নাটকে কাজ করছেন না।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কাজ করলে অনেক করা সম্ভব। কিন্তু ভালো গল্প ও চরিত্র না পেলে একগাদা নাটকে অভিনয় করে কাজের মান নষ্ট করার মানে হয় না। আমি কোয়ান্টিটির চেয়ে কোয়ালিটিতে বিশ্বাস করি।’ বিজ্ঞাপনের বেলায়ও পিয়া সেটাই মেনে চলেন। অনেক পণ্যের বিজ্ঞাপনে মডেল হওয়ার জন্য বলা হলেও একচেটিয়া বিজ্ঞাপনের মডেল হওয়া থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখেন তিনি।

(চলবে…)

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *