Tue. May 21st, 2024

ঝিনাইদহ নিউজ

সবার আগে সর্বশেষ

ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতের

1 min read
ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতের

ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতের

ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতের
ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতের

ইছামতি নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত মৃতদেহটি ভারতীয় নাগরিকের। আজ বেলা সাড়ে ৩টার দিকে ভারতীয় পুলিশ কর্তৃক মৃতদেহটি নিয়ে গেছে বলে বিজিবি সূত্রে জানা যায়।

৫৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক মোঃ তাজুল ইসলাম এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ঝিনাইদহ নিউজ’কে জানান, গত ৩০ আগস্ট ২০১৬ তারিখ আনুমানিক সাড়ে ১১টার সময় স্থানীয় জনসাধারনের মাধ্যমে জানতে পারে যে, বাঘাডংগা বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার পিলার নম্বর ৬০/৭৮-আর এর নিকট মহেশপুর উপজেলার ইছামতি নদী সংলগ্ন খোসালপুর নামক স্থানের আর্ন্তজাতিক সীমারেখা বরাবর একটি অজ্ঞাত মৃত দেহ ভেসে যাচ্ছে। সংবাদ পাওয়া মাত্রই বাঘাডাংগা বিওপির টহল দল উল্লেখিত স্থানে যেয়ে দেখতে পায় যে একটি কলা গাছের সাথে একজন পুরুষের গলিত মৃত দেহ, যার শরীরে ধুতি পরিহিত এবং শরীরের অংশ বিশেষ পোড়া।

তাৎক্ষনিকভাবে বিজিবি টহল দলের আহবানে ৯ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ এর রামনগর ক্যাম্পের সাথে গত ৩০ আগস্ট ২০১৬ তারিখ আনুমানিক দুপুর ২টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত বিওপি কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বিজিবি বিওপি কমান্ডার বিএসএফ এর ক্যাম্প কমান্ডারকে উল্লেখিত ভাসমান মৃতদেহটি গ্রহন করার জন্য অনুরোধ করলে বিএসএফ এর ক্যাম্প কমান্ডার অস্বীকৃতি জানায়।

পরবর্তীতে ৫৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ তাজুল ইসলাম ভারতের ৯ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ এর কমান্ড্যান্ট এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে বিএসএফ জানায় মৃত দেহটি ভারতীয় পুলিশ কর্তৃক উল্লেখিত স্থান হতে নিয়ে যাবে ।

তারই ধারাবাহিকতায় আজ ৩১ আগস্ট ২০১৬ তারিখ আনুমানিক সাড়ে ৩টার দিকে গতকালের ভাসমান অবস্থান হতে আনুমানিক ৮/১০ কিঃ মিঃ ভাটিতে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার হুদাপাড়া নামক স্থান হতে পিলার নং ৬০/৩৫-আর এর নিকট ভারতের অভ্যন্তর হতে ভারতীয় পুলিশ কর্তৃক মৃতদেহটি নিয়ে যায় |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *