বাবার দাফনের প্রস্তুতি অপরদিকে জন্ম হলো মেয়ের

বাবার দাফনের প্রস্তুতি অপরদিকে জন্ম হলো মেয়ের

বাবার দাফনের প্রস্তুতি অপরদিকে জন্ম হলো মেয়ের

চারিদিকে শোকের মাতম। পরিপাটি নিথর দেহ বাড়ির মাঝখানে রাখা হয়েছে। আত্মীয়-স্বজন ও পরিচিতজনরা শেষ দেখা দেখে যাচ্ছেন। দুর্ঘটনায় মারা গেছেন তিনি। আর কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে দাফন করা হবে। বাড়ির আনুষ্ঠানিকতা শেষে খাটিয়ায় করে কবরস্থানে নেওয়া হবে। এমন সময় বাড়িতেই তার ঔরসজাত কন্যা শিশুটি পৃথিবীতে এলো। শোকের পরিবেশ যেন আরো ভারি হয়ে উঠলো মুহূর্তের মধ্যে।
মৃত্যু আর বাবা কী, তা বুঝে ওঠার আগেই সদ্যোজাত মেয়ের সামনে দিয়ে গোরস্থানে নিয়ে যাওয়া হলে জন্মদাতাকে। সদ্যোজাত কিছু না বুঝলেও পরিবারের সবাই তাকে তার বাবাকে প্রথম ও শেষ বারের মতো দেখানোর চেষ্টা করেন। এসময় সেখানে উপস্থিত সবাই কান্নায় ভেঙে পড়েন। ভারি হয়ে ওঠে পরিবেশ।
এমন হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের পাইকপাড়া গ্রামে। নিহত ওলাদ হোসেন (৪৭) পাইকপাড়া গ্রামের আলহাজ লুৎফর রহমানের ছেলে। পেশায় তিনি ছিলেন ব্যবসায়ী। উপমা (১১) নামে তার আরেকটি মেয়ে রয়েছে।

সদ্যজাত কন্যা

সদ্যজাত কন্যা

নিহত ওলাদের বন্ধু ইউপি চেয়ারম্যান ইলিয়াছ রহমান মিঠু জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর বাড়ির পাশের রাস্তায় সকালে হাঁটতে গিয়েছিলেন ওলাদ। সেখানে শারীরিক অনুশীলন করার সময় অসাবধানতাবশত ব্রিজের নিচে পড়ে যান ওলাদ। এতে তার মাথায় মারাত্মক আঘাত লাগে। গুরুতর অবস্থায় প্রথমে তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (পিজি) হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসকরা। পিজিতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে মারা যান ওলাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *